১১৬বি জাতীয় সড়কে অটো ডাম্পারের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘিরে ধুন্ধুমার, পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর, আগুন ! - Newz Bangla

Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

১১৬বি জাতীয় সড়কে অটো ডাম্পারের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘিরে ধুন্ধুমার, পুলিশের গাড়িতে ভাঙচুর, আগুন !

 


কাঁথি, পূর্ব মেদিনীপুর : শুক্রবার সকালে মারিশদা থানার দইসাইতে দিঘা নন্দকুমার ১১৬বি জাতীয় সড়কের ওপর ভয়াবহ পথ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। পুলিশ সূত্রে খবর, একটি যাত্রীবাহী অটোর সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয় একটি ডাম্পারের। এই ঘটনায় অটোতে সওয়ার ১ মহিলার মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে। মৃত এক মহিলার নাম পদ্মাবতী মহড়া (৪৭) । তার বাড়ি মারিশদা থানার পশ্চিম কামারদা গ্রামে। আরও একজন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। এছাড়াও ৯জন যাত্রী গুরুতর জখম হয়েছেন।

এরপরেই উত্তেজিত জনতা মারিশদা থানার পুলিশের ওপর হামলা চালায়। সেই সঙ্গে পুলিশের একটি গাড়িতে ব্যাপক ভাঙচুর চালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। অভিযোগ, পুলিশ এই জায়গায় গাড়ি আটকে কাগজ পরীক্ষার জন্যই এমন দুর্ঘটনা। খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। উত্তেজিত জনতার হামলায় ২ পুলিশকর্মী জখম হয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৭টা নাগাদ মারিশদার কামারদা থেকে একটি অটোতে করে কাঁথির দিকে কাজে আসছিল ৯ জন মহিলা শ্রমিক। পথে দইসাই তেলিপুকুর মধ্যস্থলে অটোর সঙ্গে একটি ডাম্পারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এর জেরে ঘটনাস্থলে বেশ কয়েকজন শ্রমিক গুরুতর জখম হন। স্থানীয় বাসিন্দাদের আহতদের উদ্ধার করে কাঁথি মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানেই ২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে।  অটোচালক সহ বেশ কয়েকজনকে আশংকাজনক অবস্থায় কলকাতার স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, দুর্ঘটনাস্থলের কাছেই গাড়ি পরীক্ষা করছিল মারিশদা থানার পুলিশের একটি দল। স্থানীরা এই দুর্ঘটনার জন্য পুলিশকে দায়ী করেই তাঁদের ওপর চড়াও হয়। ভাঙচুর করে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় পুলিশের একটি গাড়িতে। এর জেরে পুলিশের এক অফিসার সহ একজন কনস্টেবল জখম হন। এর জেরে বেশ কিছু সময় ১১৬বি জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে এসে লাঠিচার্জ করে উত্তেজিত জনতাকে লাঠিচার্জ করে হঠিয়ে দেয়। সেই সঙ্গে প্রায় ঘন্টাখানেক পর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়েছে।

No comments