বিজেপি বিক্ষোভে এক লাইনেই ভাষণ শেষ করে বিধানসভা ছাড়লেন রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রীর দাবী এই বিক্ষোভ আনপ্রেসিডেন্টেড ! - Newz Bangla

Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

বিজেপি বিক্ষোভে এক লাইনেই ভাষণ শেষ করে বিধানসভা ছাড়লেন রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রীর দাবী এই বিক্ষোভ আনপ্রেসিডেন্টেড !

নিউজবাংলা ডেস্ক, কলকাতা : নজিরবিহীন ভাবে বিধানসভার অধিবেশনে যোগ দিয়েও নিজের ভাষণ পাঠ করতে রীতিমতো বেগ পেতে হল রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে। বিধানসভা অধিবেশন কক্ষের ভেতর রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে বিজেপি বিধায়কদের ব…

 

ভাষণ শেষ করে বিধানসভা কক্ষ ছাড়ছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

নিউজবাংলা ডেস্ক, কলকাতা : নজিরবিহীন ভাবে বিধানসভার অধিবেশনে যোগ দিয়েও নিজের ভাষণ পাঠ করতে রীতিমতো বেগ পেতে হল রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে। বিধানসভা অধিবেশন কক্ষের ভেতর রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর নেতৃত্বে বিজেপি বিধায়কদের বিক্ষোভের জেরে নজিরবিহীন পরিস্থিতি তৈরি হল বিধানসভা অধিবেশনের শুরুতে। বিক্ষোভকারীদের অনেক অনুরোধ উপরোধেও কাজ না দেওয়ায় শেষ পর্যন্ত নিজের ভাষণের প্রথম ও শেষ লাইন পাঠ করেই বিধানসভা কক্ষ ত্যাগ করে রাজভবনে ফিরে যান রাজ্যপাল।

এরপরেই গোটা ঘটনা নিয়ে মুখ খোলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপালকে বিদায় জানিয়েই মাইক হাতে তুলে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর দাবী, “বিধানসভার ভেতর বিজেপির বিক্ষোভ আসলে পরিকল্পিত ঘটনা। বাজেট অধিবেশন শুরু করতে না দেওয়ার জন্যই এমন আনপ্রেসিডেন্টেড বিক্ষোভ দেখিয়েছে বিজেপি”। মুখ্যমন্ত্রীর দাবী, “এদিন বিজেপি বিধায়কদের বিক্ষোভের জেরে সাংবিধানিক সংকট তৈরি হতে যাচ্ছিল। রাজ্যপাল তাঁর ভাষণ পাঠ না করলে অধিবেশন শুরু করতে সমস্যা হত”।

মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, “বিজেপি রাজ্যজুড়ে সব জায়গায় পুরভোটে বিপুল ভোটে হেরেছে। ওরা নিজেদের ওয়ার্ডেও হেরেছে। আর বিধানসভায় এসে এমন পরিস্থিতি তৈরি করছে”। মুখ্যমন্ত্রী জানান, “যে কেউ বিক্ষোভ দেখাতেই পারেন। তবে তারও একটা পদ্ধতি থাকা দরকার। রাজ্যপাল যাতে ভাষণ দিতে না পারে সেজন্যই এই বিক্ষোভের অবতারণা”। 

আরও পড়ুন- বিধানসভার অধিবেশনের শুরুতেই বিপত্তি, ওয়েলে নেমে বিজেপি বিধায়কদের বিক্ষোভ, স্থগিত রাজ্যপালের ভাষণ !

মুখ্যমন্ত্রী জানান, “একটা সময় রাজ্যপাল ভাষণ পাঠ না করেই চলে যেতে উদ্যোগী হয়েছিলেন। আমাদের ছেলেরা মেয়েরা অনুরোধ করেন সাংবিধানিক সংকট তৈরি হতে পারে বলে। আমি নিজেও হাতজোড় করে বলেছি ওনাকে। অবশেষে গভর্নর আমাকে জানান, আপনারা সবাই বসুন, আমি শুরুর ও শেষের একটা লাইন পাঠ করে যাব। অবশেষে আমাদের সবার অনুরোধে লেটারের শুরু ও শেষটা পড়ে অধিবেশন আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু করলেন”। এরজন্য রাজ্যপালকে রাজভবনে গিয়ে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করতে যাচ্ছেন বলেও মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন।

মোবাইলে নিউজ আপডেটপেতে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যোগ দিন, ক্লিক করুন Whatsapp

No comments