মহিষাদলে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, স্কুলে যাওয়ার পথে ট্রাকের তলায় পিষ্ট সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী, ঘাতক গাড়ি ভাঙচুর ! - Newz Bangla

Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

মহিষাদলে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, স্কুলে যাওয়ার পথে ট্রাকের তলায় পিষ্ট সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী, ঘাতক গাড়ি ভাঙচুর !

 


মহিষাদল, পূর্ব মেদিনীপুর : শনিবার সকালে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটল পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলে। এদিন সাইকেলে চড়ে স্কুলে আসার পথে এক ছাত্রীকে পিষে দেয় একটি ট্রাক। গুরুতর জখম অবস্থায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে দ্রুত মহিষাদল ব্লক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কিছু সময় পর ওই ছাত্রীর মৃত্যু হয়। এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পরেই ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকায়। মৃত ছাত্রীর নাম সায়ন্তনী বেরা (১৩), মহিষাদলের গয়েশ্বরী গার্লস হাইস্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এদিন বেলা সাড়ে ১০টা নাগাদ ছাত্রীটি সাইকেলে চড়ে গেওখালী রোড ধরে স্কুলে যাচ্ছিল। সেই সময় মহিষাদল গামী একটি ট্রাক প্রচন্ড গতিতে ছুটে এসে ছাত্রীটিকে পিষে দেয়। এর জেরে সাইকেলটি ট্রাকের তলায় আটকে গেলে ঘাতক গাড়ির চালক গাড়ি ফেলে চম্পট দেয়। ঘটনাস্থলে থাকা স্থানীয় কয়েকজন মেয়েটিকে দ্রুত উদ্ধার করে মহিষাদল হাসপাতালে নিয়ে গেলেও তাঁকে বাঁচানো যায়নি।

মেয়েটির মৃত্যুর খবর পৌঁছানোর পরেই এলাকার বাসিন্দারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। ঘটনাস্থলেই মহিষাদল গেওখালী রাজ্য সড়কে অবরোধ শুরু করেন তাঁরা। খবর পেয়ে মহিষাদল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এলে ঘাতক ট্রাকের চালককে গ্রেফতারের দাবীতে পরিস্থিতি আরও উত্তাল হয়ে ওঠে। এরপরেই ট্রাকটিতে ভাঙচুর চালাতে শুরু করে উত্তেজিত জনতা।

এই ঘটনার জেরে দীর্ঘ প্রায় দুই ঘন্টারও বেশী সময় রাস্তায় যান চলাচল ব্যাহত হয়। পরে মহিষাদল থানার বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘাতক গাড়িটিকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। সেই সঙ্গে রাস্তার যানজট পরিষ্কার করে। মহিষাদল থানার পুলিশ জানিয়েছে, ঘাতক গাড়ির চালকের খোঁজে তল্লাশি চলছে। সেই সঙ্গে ঠিক কোন কারনে এমন দুর্ঘটনা ঘটল তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

2 comments

  1. Sotti Khub Pathetic ghatona. Sabe matra school khuleche tar porei emon holo. Khub kharap lagche khaborta sune

    ReplyDelete
  2. This is really a nice and informative, containing all information and also has a great impact on the new technology. Check it out here:Double homework

    ReplyDelete