Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

Suvendu to Mamata Banerjee : ভবানীপুরে নির্বাচন প্রসঙ্গে তৃণমূল নেত্রীকে বিঁধলেন শুভেন্দু !

 

তমলুক, পূর্ব মেদিনীপুর : “ভবানীপুরের লড়াই হল পোষ্ট পোল ভায়োলেন্সের বিরুদ্ধে লড়াই”। শনিবার তমলুকে বিজেপির সেবামূলক কর্মসূচীতে যোগ দিয়ে তৃণমূল নেত্রী মমতার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী।

শুভেন্দুর যুক্তি, “ভবানীপুরের প্রার্থী যিনি তাঁর নেতৃত্বেই ভোট পরবর্তী হিংসায় রাজ্যের ১ লক্ষ বিজেপি কর্মী ঘরছাড়া হয়েছেন। অন্যদিকে ওই কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী যিনি তিনি পাড়ায় পাড়ায় গিয়ে, মাঠে ঘাটে ঘুরে ঘুরে থানায় থানায় গিয়ে অত্যাচারিতদের ঘরে ঢুকিয়েছেন অত্যাচারিত বাংলার জনগনকে। তাই ভবানীপুরের মানুষকেই স্থির করতে হবে তাঁরা কার বিরুদ্ধে লড়বেন”।

ভবানীপুরের ভোটে কেমন ফলাফল হতে চলেছে এ প্রসঙ্গে শুভেন্দুর মন্তব্য, “ভারতীয় জনতা পার্টি সতর্ক আছে। আশা করব মানুষ ভোট দিতে পারবে। ভোটারদের বলব বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসতে”। শুভেন্দু সংযোগ করেন, “এই লড়াই অভিজিৎ সরকারের মায়ের চোখের জলের লড়াই। ভবানীপুরের মানুষকে ঠিক করতে হবে তাঁরা অভিজিৎ সরকারের মায়ের সঙ্গে থাকবে না খেলা হবে বলে ৫৫ জন বিজেপি কর্মীকে খুন করা এবং ১ লক্ষ বিজেপি কর্মীকে ঘরছাড়া করা দলের সঙ্গে থাকবে”।

প্রসঙ্গতঃ এবারের নির্বাচনে আগের সেফ জোন ছেড়ে কিছুটা সাহসী পদক্ষেপ নিয়েই নন্দীগ্রামে প্রার্থী হয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর এক সময়ের বিশ্বস্ত সৈনিক শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সামিল হলেও সামান্য ভোটের ব্যবধানে হেরে যান তিনি। তবে মমতার হাত ধরেই রাজ্য জুড়ে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতায় ক্ষমতায় ফেরে তৃণমূল। এখন নির্বাচন কমিশনের নিয়ম মেনে সরকার গঠনের ৬ মাসের মধ্যে পুনরায় নির্বাচিত হয়ে আসতে হবে তৃণমূল নেত্রীকে। তার জন্যই ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন মমতা।

তৃণমূল নেত্রীকে কটাক্ষ করে শুভেন্দু জানান, “আমার নাম দিয়েছে ভগবানের জ্যেষ্ঠ পুত্র। তবে যতদিন বেঁচে থাকবে ততদিন কানের কাছে বাজবে আমি শুভেন্দুর কাছে হেরেছি। আপনি কোনওদিন মাথা থেকে বের করে দিতে পারবেন না। যতদিন বেঁচে থাকবেন এই যন্ত্রণা নিয়েই বাঁচতে হবে”। তমলুক থেকে ভবানীপুর প্রসঙ্গে শুভেন্দু শ্লোগান তোলেন, “বেকারত্ব ঘরে ঘরে পিসিমনি হারবে ভবানীপুরে”।

এছাড়াও লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে মহিলাদের টাকা দেওয়া প্রসঙ্গেও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে শুভেন্দুর উক্তি, “গত বছর লকডাউনের সময় দেশের ২০ কোটি মহিলাকে ৫০০ টাকা করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আর তৃণমূল নেত্রীর লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে কতজন টাকা পায় আপনারাই দেখে নেবেন”। শুভেন্দুর দাবী, “ভবানীপুরে গত লোকসভা নির্বাচনে ত্রিনমূলকে জোরাল টেক্কা দিয়েছিল বিজেপি, আর এবারের বিধানসভা উপ নিরবাচনেও একই ভাবে নরেন্দ্র মোদীকে দেখেই মানুষ ভোট দেবেন”।

No comments