Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

না জানিয়েই সংরক্ষণ কেন্দ্র থেকে সরানো হল বিপুল পরিমানে ভ্যাকসিন, প্রশাসনের কর্মকান্ড নিয়ে প্রশ্ন তুলল বিরোধীরা !

 


নিউজ বাংলা ডেস্ক : দেশ জুড়ে মহামারী নিয়ন্ত্রণে একটাই আশার আলো, টিকাকরণ। দৈনিক সেই সংখ্যা বাড়াতে দ্রুততার সাথে ভ্যাকসিনেশনের কাজ চালানো হচ্ছে। কিন্তু তারমধ্যেই শহর কলকাতার বুকে সরকারী সংরক্ষণ কেন্দ্র থেকে সরিয়ে নেওয়া হল বিপুল পরিমানে ভ্যাকসিন। আর সেই খবরেই এবার প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়েছে কেএমসি।

এমনিতেই শহরে ভুয়ো ভ্যাকসিনের দৌরাত্মে নাজেহাল অবস্থা। তারমাঝেই বালিগঞ্জ সার্কুলার রোডে কেন্দ্রের এই ভ্যাকসিন সংরক্ষণ কেন্দ্রে থাকা কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাকসিনের প্রায় ৫৫ হাজার ডোজ সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে চেতলার মেয়রস হেলথ ক্লিনিকে।

যদিও এই সংক্রান্ত কোনো তথ্যই স্বাস্থ্য দফতরকে দেওয়া হয়নি। কিন্তু এরকম কাজ কেন করা হল? কেনই বা জানাল হল না তা নিয়েই পুরসভার বিরুদ্ধে উঠছে অভিযোগ। উল্লেখ্য, ভ্যাকসিন কোথায় রাখা হবে সেখানে উপযুক্ত পরিকাঠামো রয়েছে কিনা, সময়মতো যান্ত্রিক পরিষেবা, তাপমাত্রার তারতম্য ঘটছে কিনা সবকিছু প্রতিমুহূর্তে নখদর্পনে রাখা হয়। সেক্ষেত্রে এভাবে ভ্যাকসিন নিয়ে যাওয়া এবং পরিকাঠামো ও উপযুক্ত ব্যবস্থার পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া ভ্যাকসিন নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থেকেই যায়।

যদিও এই ঘটনায় বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, রাজ্যে আগে অন্য কিছুর সিন্ডিকেট চলত, এখন ভ্যাকসিন সিন্ডিকেট চলছে। তৃণমূলের নেতারাই তো ঠিক করছেন কে টীকা পাবেন কে পাবেন না। কিন্তু এই ভ্যাকসিন গায়েবের পর উঠে এসেছে নানা প্রশ্ন। কবে এই ভ্যাকসিন নিয়ে যাওয়া হল, কেনই বা নিয়ে যাওয়া হল, সেই বিষয়ে কেন কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি স্বাস্থ্য দফতরকে।

স্বাস্থ্য ভবনের আধিকারিকদের দাবি, সপ্তাহখানেক পর পাঠানো চিঠিতে কেন ওই টিকা সরানো হল, তা নিয়ে কোনো শব্দ খরচ করা হয়নি। স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে প্রশ্ন উঠেছে, কেন টিকা সরানোর আগে জানানো হল না? কেন সরানো হয়েছে সেই কারণও জানানো হল না কেন প্রশ্ন উঠছে সেটা নিয়েও।

 

   মোবাইলে আরও নিউজ আপডেট পেতে এইখানে ক্লিক করুন - Whatsapp

 

No comments