Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়েছিল আকাঙ্খার পরিবার, বাঁকুড়ার যুবতীর হাড়হিম করা খুনের ঘটনায় প্রেমিকের যাবজ্জীবন সাজা শোনাল আদালত !

 


নিউজ বাংলা, বাঁকুড়া : সকাল থেকেই নজর ছিল বাঁকুড়া আদালত চত্ত্বরে। বৃষ্টিভেজা দিনেও থিকথিকে ভিড় গোটা কোর্ট চত্ত্বরে। নজরে ছিল আকাঙ্খা শর্মা হত্যাকাণ্ডে ২০১৭ তে গ্রেফতার হওয়া মূল আসামী উদয়ন দাসের বিচারপর্ব।

এদিন সেই ঘটনার বিচারেই বাঁকুড়া ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে বিচারক সুরেশ বিশ্বশর্মা তার যাবজ্জীবন সাজা ঘোষণা করেন। উল্লেখ্য, বাঁকুড়ার রবীন্দ্রসরণীর বাসিন্দা এক ব্যাঙ্ক ম্যানেজার এর কন্যা আকাঙ্খা শর্মার সাথে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রণয়ঘটিত সম্পর্ক গড়ে ওঠে উদয়ন দাসের সাথে।

সেই সূত্র ধরেই ২০১৬ সালে জুন মাসে আকাঙ্খা বাড়ি থেকে আমেরিকায় ইউনিসেফে কাজের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে যান। বাড়িতে উদয়নের দেওয়া ইউনিসেফের ভুয়ো নিয়োগপত্র দেখিয়েছিল সে।

এরপর সোজা ভোপালে প্রেমিকের বাড়িতে পৌঁছায় আকাঙ্খা। সেখানে তারা বিয়ে করেন। কিন্তু তারপর থেকেই ক্রমশ অশান্তি, বচসা লেগে থাকত। এরপর ২০১৬ এর জুলাই মাসে চরম অশান্তির জেরে আকাঙ্খাকে খুন করে উদয়ন।

বাড়ির মধ্যে একটি ট্র্যাঙ্কে দেহ ভরে পরে সিমেন্টের বেদী বানায় তার ওপর। ঘটনার পর আকাঙ্খার ফোন থেকেই তার বাড়িতে হোয়াটস্যাপ মারফত জানানো হয়, সে আমেরিকা পৌঁছে গিয়েছে।

বারবার মেসেজ পেলেও ফোনে মেয়েকে না পেয়ে সোজা বাঁকুড়া থানায় বিষয়টি জানায় আকাঙ্খার পরিবার।  পুলিশ ফোন নাম্বার ট্র্যাক করে জানতে পারে নাম্বারটি ভোপালের সকেতনগরে আছে। পরিবারের লোকেরা সেখানে গিয়ে কাউকে খুঁজে পায়না।

ফের থানায় যোগাযোগ করলে বাঁকুড়া পুলিশ ভোপাল পুলিশের সাহায্য নিয়ে সকেতনগর এলাকা থেকে ২০১৭ সালের ২রা ফেব্রুয়ারী উদয়নকে গ্রেফতার করে। বিষয়টি নিয়ে পুলিশি জেরায় সে সমস্ত তথ্য জানায়।

সাথে এও জানায়, নিজের বাবা মাকেও এভাবেই খুন করে বাগানে পুঁতে রেখেছে সে। হাড়হিম করা এই তথ্য জেনেই সকেতনগরে বাড়িতে গিয়ে বেদী ভেঙে আকঙ্খার কঙ্কাল দেহ এবং বাড়ি সংলগ্ন বাগান থেকে উদয়নের বাবা ও মায়ের দেহ উদ্ধার করে। এরপর ২০১৭ সালের জুলাই মাসে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ।

গতকাল তাকে দোষী সাব্যস্ত করে বাঁকুড়া আদালত, আজ তার সাজা ঘোষণা হয়। যদিও যাবজ্জীবন সাজার বিষয়ে তার মধ্যে কোনো অনুশোচনা দেখা যায়নি। মেয়ের হত্যাকারীর উপযুক্ত শাস্তিতে খুশি শর্মা পরিবার।

 #NewzBangla #BengaliNews #CrimeReport #NewsUpdate #নিউজবাংলা #Bankura #AkanshaSharmaMurderCase

No comments