Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

অর্থাভাব ! শেষকৃত্য না করেই মহিলার দেহ দেহ ভাসানো হল নদীতে !

নিউজ বাংলা ডেস্ক : মৃত্যুর পরও পিছু ছাড়লো না দারিদ্র্যতা। টাকার অভাবে এক আদিবাসী মহিলার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন না করেই কোনো উপায় না পেয়ে ওই মহিলার মৃতদেহ নদীতে ভাসিয়ে দিল তাঁর পরিজনরা। সাহায্য চেয়েও বারবার নিরাশ হন তাঁরা।…


নিউজ বাংলা ডেস্ক : মৃত্যুর পরও পিছু ছাড়লো না দারিদ্র্যতা। টাকার অভাবে এক আদিবাসী মহিলার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন না করেই কোনো উপায় না পেয়ে ওই মহিলার মৃতদেহ নদীতে ভাসিয়ে দিল তাঁর পরিজনরা। সাহায্য চেয়েও বারবার নিরাশ হন তাঁরা।

মধ্যপ্রদেশের সিধি জেলার এই আদিবাসী মহিলা দীর্ঘদিন ধরেই রোগে ভুগছিলেন। চিকিৎসা হয়নি তেমনভাবে। বলা চলে কার্যত বিনা চিকিৎসাতেই মৃত্যু হয় তাঁর। ওই আদিবাসী মহিলার পরিজনরা অভিযোগ করেছেন, স্থানীয় প্রশাসনের কাছে বারবার সাহায্য চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসেনি।

ফলে বাধ্য হয়েই তারা সেই মহিলার দেহ নদীর জলে ভাসিয়ে দেয়। এমন ঘটনা সারা দেশকে নাড়িয়ে দিয়েছে। এমনকি নদীর পাড়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও শববাহী যানও তারা পাননি। ফলে মাল নিয়ে যাওয়ার ঠেলাগাড়িতে করেই ওই মহিলার মৃতদেহ নদীর পাড়ে নিয়ে যায় তাঁর পরিবারের লোকেরা।

ঘটনাটি ঘিরে যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে মধ্যপ্রদেশে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের রোষের মুখে পড়েছেন মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ চৌহান। কমল নাথ টুইট করে তাঁকে বলেন, ''আমি যখন মুখ্যমন্ত্রী ছিলাম তখন আপনারা বারবার গরিব মানুষের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

আপনি তো নাকি গরিব মানুষের অন্তোষ্টিক্রিয়া নিয়ে যোজনা করেছিলেন। কোথায় গেল আপনার সেই যোজনা! এই ঘটনা তো মানবিকতাকে আরো একবার প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে দিল। শিবরাজ সিং চৌহান আপনার সরকারের ব্যর্থতা এবার এককথায় মেনে নিন"।

দেশের মানুষের বেহাল আর্থিক দশা ও আদিবাসীদের দুর্দশা যেন এই ঘটনার মাধ্যমে আরো একবার প্রকাশ্যে এসেছে। সমাজের একশ্রেণীর মানুষ এখনও কতটা দারিদ্র্যের মধ্যে দিন কাটান তা আরও একবার প্রকট হয়ে উঠল।  মৃত্যুর পরও রেহাই নেই। দারিদ্র তাড়া করে বেড়াল শেষ পর্যন্ত।

No comments