Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

একটি এনকাউন্টার, উঠছে হাজারো প্রশ্ন, বিকাশ দ্যুবের মৃত্যু ঘিরে বিরোধীদের প্রশ্নবানে জেরবার উত্তরপ্রদেশ সরকার !

নিউজ বাংলা, কানপুর : মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনী মহাকাল মন্দির থেকে গ্রেফতার হন কুখ্যাত দুষ্কৃতী বিকাশ দ্যুবে। আজ তাকে কানপুর নিয়ে আসার পথে ভোউতিতে পুলিশের সাথে গুলির লড়াইতে জখম হন এবং পরে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর এই কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা বল…


নিউজ বাংলা, কানপুর : মধ্যপ্রদেশের উজ্জয়িনী মহাকাল মন্দির থেকে গ্রেফতার হন কুখ্যাত দুষ্কৃতী বিকাশ দ্যুবে। আজ তাকে কানপুর নিয়ে আসার পথে ভোউতিতে পুলিশের সাথে গুলির লড়াইতে জখম হন এবং পরে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর এই কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা বলেই মন্তব্য বিরোধীদের।

ঝাঁসি থেকে কানপুর আসার পথেই প্রায় সাড়ে পাঁচটা নাগাদ ১৫০ কিমি আগে সংবাদমাধ্যমের গাড়ি আটকে দেওয়া হয়। রাস্তায় ব্যারিকেড এবং বড় লরি আড়াআড়ি ভাবে দাঁড়িয়ে ছিল বলেই স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর। জ্বালন টোলপ্লাজায় সংবাদমাধ্যমের গাড়ি তল্লাশি করার ঘটনাও ঘটে এদিন।

যদিও পুলিশ সূত্রে দাবী, যেহেতু বিকাশ দ্যুবেকে এই ঝাঁসি-কানপুর সড়কে নিয়ে যাওয়া হবে তাই বাড়তি নিরাপত্তার কারণে বিভিন্ন গাড়ি চেক করা হচ্ছিল গভীর রাত থেকেই। কিন্তু সংবাদমাধ্যমের যে গাড়িগুলি পুলিশ কনভয়ের সাথেই ঝাঁসি থেকে আসছিল সেগুলিকে আটকে কেন তল্লাশি চালানো হল তা নিয়েই উঠছে প্রশ্ন।

ভোউতিতে প্রায় সাড়ে ছটা নাগাদ বিকাশ দ্যুবে নিহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়। গাড়ির মধ্যেই সংঘর্ষ এবং এসটিএফ কর্মীর বন্দুক ছাড়িয়ে পালানোর চেষ্টা করে সে। তখনই গাড়ির মধ্যে হাতাহাতির কারণে ভোউতিতে রাস্তা থেকে কনভয়টি একটি জায়গায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়।

সেখানেই গাড়ি থেকে বেরোনোর পর পুলিশ এবং বিকাশের গুলির লড়াই চলে। রাস্তা থেকে প্রায় দুশো মিটারের কাছাকাছি দূরত্বে মাঠের মধ্যে পুলিশের গুলিতে গুরুতর জখম হন বিকাশ।

আরও খবর পড়ুন -টানটান উত্তেজনা, পুলিশের গুলিতে খতম উত্তরপ্রদেশের কুখ্যাত ডন বিকাশ দুবে !

ঘটনায় তিন পুলিশকর্মীর মধ্যে দুজন গুরুতর জখম অবস্থায় কানপুর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। আর একজনের হাতে চোট লেগেছে বলে খবর।


যদিও পুলিশ সূত্রে এই খবর এখনও জানানো হয়নি, ঠিক কোন কারণে জখম এই তিন পুলিশকর্মী। গাড়ি উল্টে যাওয়ার ঘটনায় না বিকাশের সাথে গুলির লড়াই সেটা পরিষ্কার নয় এখনও। বিকাশের এই এনকাউন্টার নিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন বিরোধীরা। নিখুঁতভাবে এত তাড়াতাড়ি সবটা যদি এখন সম্ভব হল তাহলে এতদিন বিকাশের জন্য কেন তৎপর ছিলনা পুলিশ। বিরোধীদের বিভিন্ন প্রশ্নে বিকাশ দ্যুবের মৃত্যু নিয়ে জট পাকিয়েছে।

সমাজবাদী পার্টির সভাপতি  অখিলেশ যাদব বলেন, গাড়ি উল্টে যায়নি, সরকার উল্টে যাওয়ার ঘটনা থেকে বাঁচানো হয়েছে। কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা বচরা বলেন, অপরাধী খতম হয়েছে, কিন্তু যারা অপরাধকে আড়াল করেছিল তাদের কি হবে। কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিং বলেন, তিন জনের এনকাউন্টার একইরকম হয় কিভাবে?  যা আশঙ্কা ছিল তাই হল। ওমর আব্দুল্লাহ খোঁচা মেরে বলেন, মৃত মানুষ কথা বলেনা।

উল্লেখ্য, আজকেই বিকাশকে কানপুরে নিয়ে আসার পরে আদালতে পেশ করা হবে এমনটাই সিদ্ধান্ত ছিল। কিন্তু সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ পুলিশের এনকাউন্টারে তার মৃত্যু হয়। তবে বিরোধীদের একের পর এক ট্যুইট এবং মন্তব্যেই নতুন বিতর্ক উস্কে দিচ্ছে বিকাশের এনকাউন্টারের পেছনে।


No comments