Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

লকডাউনে পুলিশকে ফাঁকি দিতে প্রেস স্টিকারের ভুয়ো ব্যবহার, গ্রেফতার ঠিকাদার !

নিউজ বাংলা, বর্ধমান : করোনার সংক্রমণ রুখতে রাজ্যজুড়ে সাপ্তাহিক লকডাউন পালন করা হচ্ছে। লকডাউনের ঘেরাটোপ থেকে ছাড় পেতে 'প্রেস স্টিকার' কে কাজে লাগিয়ে চলছে একাধিক কাজকর্ম। সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত নন এমন ব্যক্তিও সাংবাদিকের …

নিউজ বাংলা, বর্ধমান : করোনার সংক্রমণ রুখতে রাজ্যজুড়ে সাপ্তাহিক লকডাউন পালন করা হচ্ছে। লকডাউনের ঘেরাটোপ থেকে ছাড় পেতে 'প্রেস স্টিকার' কে কাজে লাগিয়ে চলছে একাধিক কাজকর্ম।

সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত নন এমন ব্যক্তিও সাংবাদিকের ভুয়ো পরিচয়পত্র বানিয়ে নানা কাজকর্মে যুক্ত থাকছেন। লকডাউনের তৃতীয় দিনে মিথ্যে সাংবাদিকের পরিচয় দিয়ে লকডাউন অমান্য করার অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেন একজন।

সূত্রের খবর, মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জের বাসিন্দা সুরোজ শেখ পেশায় ঠিকাদার একটি দামি গাড়িতে প্রেস স্টিকার লাগিয়ে মুর্শিদাবাদ থেকে চুঁচুড়া আসছিল। বর্ধমানের কার্জন গেটে নাকা চেকিংয়ের সময় এই গাড়িটিকেও আটকে সুরোজের সাথে কথাবার্তা বলছিল বর্ধমান পুলিশের কর্তব্যরত পুলিশকর্মী।

সুরোজ জানান, তিনি সাংবাদিক। সংবাদ সংগ্রহের কাজেই রাস্তায় বেরিয়েছেন। পুলিশের বিষয়টিতে সন্দেহ হওয়ায় সাংবাদিকের পরিচয় পত্র দেখতে চাওয়া হয়। প্রথমে পরিচয় পত্র দেখাতে অস্বীকার করলেও পরে মেয়াদ উত্তীর্ণ এক স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের পরিচয়পত্র বের করে পুলিশকে দেখায় সুরোজ।

কথাবার্তায় অসঙ্গতি এবং ও কাগজপত্র দেখানোর অভিযোগে সুরোজকে গ্রেপ্তার করে বর্ধমান থানার পুলিশ। বর্ধমান থানার পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, আটক গাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে সুরোজের লাইসেন্সপ্রাপ্ত একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশি জেরায় সুরোজ স্বীকার করেছে, চুঁচুড়ার হুগলি জেলা পরিষদে ঠিকাদারির কাজেই তিনি এদিন মুর্শিদাবাদ থেকে রওনা দিয়েছিলেন। যেকোনো সমস্যায় বাড়তি সুযোগ সুবিধা পাওয়ার জন্য স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখতেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

যদিও এই তথ্য নতুন বিষয় নয়, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত জুড়ে একাধিক জায়গায় প্রেস স্টিকার লাগিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে দুই চাকা থেকে চার চাকার গাড়ি। নানা অসামাজিক কার্যকলাপ এবং ভুয়ো নথি দেখিয়েও অনেকে ছাড় পেয়ে যান পুলিশের হাত থেকে। স্বল্প মূল্যে বিভিন্ন স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের ভুয়ো পরিচয়পত্র নানা বিপদ ডেকে আনছে সামাজিক স্তরে। তাই এই অপরাধ রুখতে বাড়তি নজরদারি চালানো উচিত বলে পুলিশের একাংশের মত।

তথ্যসূত্র-নিউজ১৮বাংলা

#newzbangla #SouthBengalNews #Lockdown #bengalinews #নিউজবাংলা #newsbangla #FightAgainstCovid19


No comments