Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

করোনায় মৃতের আধপোড়া দেহ শ্মশানে চিবিয়ে খাচ্ছে কুকুর !

নিউজ বাংলা ডেস্ক : করোনায় একাধিকবার মৃতদেহ সৎকার, পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া, কখনও মৃত্যুর পরে দেহ লোপাট করার অভিযোগ দেশের একাধিক রাজ্য থেকে উঠে এসেছে। এবার সেই করোনায় আধপোড়া মৃতদেহ শ্মশানে কুকুর চিবিয়ে খাচ্ছে এই ঘটনাতেই শোরগোল গোট…

নিউজ বাংলা ডেস্ক : করোনায় একাধিকবার মৃতদেহ সৎকার, পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া, কখনও মৃত্যুর পরে দেহ লোপাট করার অভিযোগ দেশের একাধিক রাজ্য থেকে উঠে এসেছে। এবার সেই করোনায় আধপোড়া মৃতদেহ শ্মশানে কুকুর চিবিয়ে খাচ্ছে এই ঘটনাতেই শোরগোল গোটা দেশে।

সূত্রের খবর এই ঘটনা ঘটেছে হায়দ্রাবাদে। করোনায় মৃতদেহের সত্‍‌কারে গাফলতি নিয়ে একের পর এক কেলেঙ্কারি সামনে আসছে। প্রশ্ন উঠছে দেহগুলি সৎকারে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিয়ে। কখনও  মুসলিম নারীর লাশ শ্মশানে দাহ তো কখনও হিন্দু নারীর লাশ কবরে পাঠানো। এবার প্রকাশ্যে এলো করোনায় মৃত লাশের কুকুরে কামড়ে খাওয়ার মতো মর্মান্তিক দৃশ্য।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হায়দ্রাবাদের একটি শ্মশানে সদ্য জ্বলে যাওয়া চিতার আশপাশে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুকুর। তার মধ্যে একটি আবার করোনায় মৃত আধপোড়া দেহের একটি অংশ মুখে করে চিবোচ্ছে। এই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তেই নেটিজেনের প্রবল রোষের মুখে পড়ে পৌর প্রশাসন। কেন মৃতদেহ স‌কারের যথাযথ ব্যবস্থা করা হয়নি, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে একাধিক মহলে।

জবাবে গ্রেটার হায়দ্রাবাদ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রবল বৃষ্টি হওয়ায় চিতার আগুন নিভে যায়। তখনই একটি ভাঙা দেওয়াল দিয়ে ভেতরে ঢুকে যায় কুকুরের দল। প্রশাসন বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়েছে। ৫ জুলাই ঘটনাটি জানতে পারার পরেই দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

পুরনিগমের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সনত্‍‌নগর শ্মশানে কোভিড-১৯ নিয়ম মেনেই দেহটি সত্‍‌কার করা হয়েছিল। কিন্তু প্রবল বৃষ্টি এসে যাওয়ায় চিতার আগুন নিভে যায়। কর্মকর্তা আরও জানান, দেওয়ালের একটি অংশও বৃষ্টিতে ভেঙে পড়ে। ফলে এলাকার কুকুরের দল সহজেই সেখানে ঢুকে পড়ে। ওই ঘটনার পর চিতার উপর ছাউনি দেওয়া হয়েছে। ভাঙা দেওয়ালটিও সারানো হয়েছে। পাশাপাশি একটি বৈদ্যুতিক চুল্লিও তৈরি করা হচ্ছে।

তবে এই চিত্র আজ মানুষের সামনে আসতেই প্রবল সমালোচনা সৃষ্টি হয়েছে, হয়ত এভাবেই অনেক জায়গাতেই মৃতদেহ গুলি যথেচ্ছ ভাবে সৎকার করে দায় এড়াতে চায় প্রশাসন আর তেমনটা যে হচ্ছে না সেটার কি প্রমান এমনটাই দাবী নেটিজেনদের।


No comments