Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

রাজ্যে প্রথমবার ইউজিসি'র নির্দেশিকার বিরুদ্ধে অভিনব প্রতিবাদে সামিল দুই মেদিনীপুরের শতাধিক ছাত্রছাত্রী !

নিউজবাংলা ডেস্ক : করোনা আবহেই কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে বকেয়া পরীক্ষা নিতে বদ্ধ পরিকর ইউজিসি (ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশন)। এই বিষয়ে ইউজিসি'র তরফে নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে। ইউজিসি'র দাবী, দেশের অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয় পরী…

নিউজবাংলা ডেস্ক : করোনা আবহেই কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে বকেয়া পরীক্ষা নিতে বদ্ধ পরিকর ইউজিসি (ইউনিভার্সিটি গ্রান্ট কমিশন)। এই বিষয়ে ইউজিসি'র তরফে নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছে। ইউজিসি'র দাবী, দেশের অধিকাংশ বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নিতে আগ্রহী।

কিন্তু এমন পরিস্থিতিতে যখন মাসের পর মাস কোনও ক্লাস হল না, পঠন পাঠন পুরোদস্তুর শিকেয় উঠেছে সেই সময় পরীক্ষা হলে ছাত্রছাত্রীদের চরম দুরবস্থার মুখে পড়তে হবে বলেই দাবী ছাত্রছাত্রীদের।

পরিবর্তে এই রাজ্যের সরকার কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বকেয়া পরীক্ষার যে নীতি নিয়েছে তাতেই সমর্থন জানিয়েছে এই রাজ্যের ছাত্রছাত্রীরা। এরফলে ছাত্রছাত্রীরা অনেকটাই মানসিক চাপ মুক্ত হতে পারবে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন অনড় পরীক্ষা নেওয়ার জন্য। 


এই পরিস্থিতিতে অভিনব প্রতিবাদে সামিল হল দুই মেদিনীপুরের হাজার হাজার ছাত্রছাত্রী। পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচী অনুযায়ী এদিন দুই জেলা জুড়ে ছাত্র-ছাত্রীরা ঘরে বসে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে এসে প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

ইউজিসির নির্দেশের বিরুদ্ধে প্লাকার্ড হাতে ছবির মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা। এবং সেই ছবি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ইউজিসির নিয়মের বিরুদ্ধে নিজেদের মতামত জানান ছাত্রছাত্রীরা।

এই প্রতিবাদে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছেন দেশপ্রাণ মহাবিদ্যালয় তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ইউনিট, রামনগর কলেজ, মহারাজা নন্দকুমার কলেজ, স্বর্ণময়ী যোগেন্দ্রনাথ মহাবিদ্যালয়, মুগবেড়িয়া কলেজ, তাম্রলিপ্ত মহাবিদ্যালয় ,বাজকুল মিলনী মহাবিদ্যালয় ,মহিষাদল রাজ কলেজ ও মহিষাদল গার্লস কলেজ, যোগদা সৎসঙ্গ মহাবিদ্যালয়ের ছাত্র ছাত্রীরা।


স্বতঃস্ফূর্তভাবে এই ভার্চুয়াল প্রতিবাদে সামিল হয়ে দেশপ্রাণ মহাবিদ্যালয় ইউনিট সভাপতি আবেদ আলী খান জানিয়েছেন, আমরা এই ভার্চুয়াল প্রতিবাদের মাধ্যম থেকে ইউজিসিকে জানিয়ে রাখলাম কোন প্রকারে এই মহামারী পরিস্থিতিতে ছাত্রদের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়া চলবে না।

পরীক্ষা সংক্রান্ত বিষয়ে ছাত্র-ছাত্রীদের পাশে আমরা প্রথম থেকেই ছিলাম এবং আগামী দিনে থাকবো। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে সমস্ত কলেজের টিএমসিপি ইউনিট এই ভার্চুয়াল প্রতিবাদে সামিল হয়েছে।


পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল ছাত্র পরিষদ সভাপতি সৌরভ চক্রবর্তী নেতৃত্বে এদিন বড়সড় প্রতিবাদ আন্দোলন সংঘটিত হয়েছে। এছাড়াও তারাশঙ্কর পন্ডা, নিমাই দাস, শুভেন্দু ভোক্তা লক্ষ্মীকান্ত অধিকারী, অমিত দিন্দা, প্রসেনজিৎ সামন্ত, শারমিনরা বিবি, শেখ রহমত আলী, জয়দেব পাত্রের মতো ছাত্রনেতারা ভার্চুয়াল প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন।

4 comments

  1. Amra tomar pass achi ami 3rd year ER student from kalayani University amra exam dibona keu wb board er kache request thaklo wb government er kacheER kache sarkar ER kache o Amader mukhho mantrir kache anurodh roilo🙏🙏🙏

    ReplyDelete
  2. No exam in covid 19 please amader sapport korun manoniya mukhhomantri mamata Didi please help korun

    ReplyDelete
  3. আমিওএকজন ফাইনাল বর্ষের পরীর্ক্ষার্থী তবে আমার জীবনের সুরক্ষার চেয়ে পরীক্ষা বড় না। যদি এই অবস্থায় পরীক্ষাহয় তাহলে আমি পরীক্ষা দিতে রাজি না।আর বিশ্ববিদ্যালয়ের এই অনড় অবস্থানের প্রতিবাদে নিজে পরীক্ষা বয়কট করলাম

    ReplyDelete
  4. I am a final year student from Tripura. Serious condition is running due to the covid 19. After observing all the situation I am demanding for cancel the new guidelines of ugc

    ReplyDelete