Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

পুরনো খবর নতুন করে প্রকাশে এবার বাধা দেবে ফেসবুক !

নিউজ বাংলা ডেস্ক : সোশ্যাল মিডিয়া আশীর্বাদ না অভিশাপ ! আপাতত এই কাঠগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। ফেক নিউজ থেকে পুরনো খবরের রিভার্সের ঘটনায় নিজেদের আইডেন্টিটি হারানোর পর্যায়ে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এর মত জনপ্রিয় সোশ্যাল…


নিউজ বাংলা ডেস্ক : সোশ্যাল মিডিয়া আশীর্বাদ না অভিশাপ ! আপাতত এই কাঠগোড়ায় এসে দাঁড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া। ফেক নিউজ থেকে পুরনো খবরের রিভার্সের ঘটনায় নিজেদের আইডেন্টিটি হারানোর পর্যায়ে ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার এর মত জনপ্রিয় সোশ্যাল দুনিয়া।

এবার তিন মাসের বেশি পুরনো খবর শেয়ার করলে সতর্ক করবে ফেসবুক। তবে ফেসবুক নিউজ পোস্ট করা আটকাবে না। পুরোনো খবর শেয়ার করতে গেলে দুটি ধাপ পেরোতে হবে। অর্থাৎ, ফেসবুকে নিউজ পোস্টের সময় জানতে হবে, আপনি যে পোস্টটি শেয়ার করছেন, তা কমপক্ষে ৯০ দিনের পুরনো।

ফেসবুক কর্তৃপক্ষ আশা করছে, মানুষকে পুরোনো খবর সম্পর্কে জানিয়ে দিলে তাঁরা অন্তত ফেসবুকে পুরনো খবর শেয়ার করা বন্ধ করবেন। খুব শীঘ্রই সব ব্যবহারকারীর জন্য ফিচারটি আনতে চলেছে ফেসবুক।

ফেসবুকের এক অফিশিয়াল ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, খবর প্রকাশকেরা পুরনো খবর ফেসবুকে ছড়ানো নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। কারণ, সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে অনেকেই পুরোনো খবর শেয়ার করে নতুন ঘটনার মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি করেন। এ কারণে অনেক প্রকাশক তাদের ওয়েবসাইটে পুরোনো খবরগুলো চিহ্নিত করার ব্যবস্থা করছেন যাতে তার অপব্যবহার ঠেকানো যেতে পারে।

পাশাপাশি ফেক নিউজ রুখে দেওয়ার ক্ষেত্রে এই অপশন অনেকটাই কাজে আসবে বলে মনে করা হচ্ছে। ফেসবুক জানিয়েছে, তিন মাসের বেশি পুরনো কোনো খবর শেয়ারে ক্লিক করলে একটি নোটিফিকেশন বাটন হাজির হবে। এটি যদি প্রাসঙ্গিক মনে করেন, তবে ব্যবহারকারী তা শেয়ার করতে পারবেন।

অন্যদিকে, ফেসবুক সম্প্রতি মেসেঞ্জার প্ল্যাটফর্মে একটি সেফটি ফিচার নিয়ে এসেছে যাতে অপরিচিত কারও সঙ্গে আলাপচারিতায় স্ক্যামের শিকার হওয়া ঠেকাবে। আলাপচারিতায় সন্দেহজনক কিছু দেখলে মেসেঞ্জার একটি সেফটি মেসেজ পাঠাবে স্ক্যামের শিকার হওয়া ব্যবহারকারীকে। এর পাশাপাশি তৎক্ষণাৎ কাউকে ব্লক করার অপশন থাকবে।

ফেসবুকের পাশাপাশি টুইটার কর্তৃপক্ষও অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে নতুন নিরাপত্তা ফিচারের কথা বলেছে। এতে কেউ খবর শেয়ার করতে গেলে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানাবে টুইটার। সম্প্রতি ফেক নিউজ, ফেক অ্যাকাউন্ট নিয়ে নানা সমালোচনার কারণে এসব বিষয়ে ব্যাপক কঠোর হয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ।


No comments