Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

এবার মার্শাল আর্টের প্রশিক্ষণ নেবে চিন সেনা !

নিউজ বাংলা ডেস্ক : ক্রমেই পেশিশক্তির লড়াই দেখিয়ে উপত্যকা অঞ্চলে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে চিন। সীমান্তে যুদ্ধকালীন আবহে এবার বিপক্ষদের কুপোকাত করতে অস্ত্র ছাড়াও ভরসা করছেন মার্শাল আর্ট এর ওপর। উপগ্রহ চিত্রে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে স…


নিউজ বাংলা ডেস্ক : ক্রমেই পেশিশক্তির লড়াই দেখিয়ে উপত্যকা অঞ্চলে সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে চিন। সীমান্তে যুদ্ধকালীন আবহে এবার বিপক্ষদের কুপোকাত করতে অস্ত্র ছাড়াও ভরসা করছেন মার্শাল আর্ট এর ওপর।

উপগ্রহ চিত্রে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সীমান্তে যেভাবে সেনাছাউনি তৈরী করে ঘাঁটি গড়ছে চিন তাতে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে নিজেদের প্রস্তুতি প্রদর্শন সেই নমুনাই প্রকাশ করছে। পাল্টা পেশিশক্তি বৃদ্ধিতে সামরিক যান এবং টহলদারি বাড়িয়েছে ভারতীয় সেনা। ইঞ্চি জায়গা বুঝে নেওয়ার মত পরিস্থিতি কতটা আলোচনার মাধ্যমে মিটবে তা নিয়ে যথেষ্ট চিন্তাপ্রবন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা।

সংবাদসংস্থা সূত্রের খবর, সীমান্তে সেনাদের মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষণ দিতে প্রশিক্ষক পাঠাচ্ছে চীন। সেনাদের প্রশিক্ষণ দিতে ২০ জন মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষককে চীনের তিব্বত অংশে পাঠানো হচ্ছে।

তবে সেনাদের প্রশিক্ষণ দিতে প্রশিক্ষক পাঠানো নিয়ে চীন সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। আর এমন সময় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল, যখন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনায় ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছেন। আহত হন ৭৬ জন সেনা।

১৯৯৬ সালের চুক্তি অনুযায়ী, ভারত এবং চীনের সেনারা সীমান্ত এলাকায় বন্দুক এবং বিস্ফোরকের ব্যবহার করতে পারবে না। তাই সেই চুক্তি অনুযায়ী কাঁটা তার জড়ানো লোহার রড নিয়েই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে নামে চিন সেনারা। পাল্টা জবাবে ভারতীয় সেনার আক্রমণে নিহত এবং জখম হন প্রায় ৪৩জন চিনি সেনা।

চিনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম সিসিটিভি জানায়, এনবো ফাইট ক্লাবের ২০ জন মার্শাল আর্ট প্রশিক্ষককে তিব্বতের রাজধানী লাসায় নিয়ে যাওয়া হবে। তবে এইসব মার্শাল আর্ট যোদ্ধা সেনাদের প্রশিক্ষণ দেবে কিনা সে বিষয় এখনই স্পষ্ট ধারণা পাওয়া যায়নি।


No comments