Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

হাতে কাজ নেই, তাই অবসাদ কাটাতে চাষাবাদে আপন মনে নাওয়াজউদ্দীন !

নিউজ বাংলা ডেস্ক : বলিউডের স্বজনপ্রীতি কিংবা সুদর্শন, সুঠাম দেহ কোনো কিছুই ছিল না উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের কৃষক পরিবারের সন্তান নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকীর। কেমিস্ট, দারোয়ানের চাকরি করে একটু একটু করে অভিনয়কে রপ্ত করেছেন। মঞ্চ থেকে সিন…


নিউজ বাংলা ডেস্ক : বলিউডের স্বজনপ্রীতি কিংবা সুদর্শন, সুঠাম দেহ কোনো কিছুই ছিল না উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের কৃষক পরিবারের সন্তান নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকীর। কেমিস্ট, দারোয়ানের চাকরি করে একটু একটু করে অভিনয়কে রপ্ত করেছেন। মঞ্চ থেকে সিনেমা, পকেটমার, ভিক্ষুক, দারোয়ান, মালিই ছিল প্রথমে করা চরিত্র। এরপর কম কাঠখড় পোড়াতে হয়নি।

অবশেষে গ্যাংস্টার হয়েই বলিউডে পা রাখলেন তিনি। এখন বিশ্বজোড়া খ্যাতি। তবু মুজফফরনগরের কৃষক পরিবারের নওয়াজ চাষের কাজেই পান শান্তি।

এনএসডি পাস করার পর নাওয়াজ মাটির কাছেই খুঁজে পান নিজের পরিচয়। কতটা  শেকড়ের টান থাকলে স্যাক্রেড গেমসএর গণেশ গাইতন্দে হয়ে যান তিনি।

করোনা পরিস্থিতিতে এখনও থমকে বলি পাড়ার কাজ। কবে ফিরবে চেনা ছন্দে সিনেমার শুটিং টা নিয়ে রয়েছে চিন্তা। এর মধ্যে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে সরগরম বলিউড। এলোমেলো সবার মন। আর ঠিক এই মুহূর্তে নওয়াজ এসব থেকে অনেক দূরে নিজের মনের মত করে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে মনকে শান্তি দিতে কিংবা তাঁর ভাষায় 'পরম মুক্তি' লাভে তিনি এখন মাটির কাছে, মুজফফরনগরের বুধানার কৃষিজমিতে। সম্প্রতি টুইটারে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন নওয়াজ। সেই ভিডিওতে দেখা গেল, মাথায় পাগড়ি, সাধারণ গেঞ্জি আর প্যান্ট পরে কোদাল হাতে  ব্যস্ত নওয়াজ। বলছেন, 'আজকের মতো কাজ শেষ।'

এর আগে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, 'আমি এখানেই আমার পরম শান্তি খুঁজে পাই। বেশির ভাগ মানুষ বিষাদগ্রস্ততা কাটাতে কিংবা আবার সজীব হতে আশ্রমে যান। কিন্তু আমি যাই আমার শেকড়ে, যেখানে আমি আমার জীবনের অর্ধেক কাটিয়েছি। সেখানে আমি খেতে সময় কাটাই, আখ খাই, ট্রাক্টর চালাই এবং শৈশবের বন্ধুদের সঙ্গে মজা করি।'

নওয়াজ আরও বলেন, 'যখন আমি মাঠে কাজ করি, তখন আমার জীবনের শুরুর গল্পগুলো মনে পড়ে। এবং পরিশ্রম ছাড়া জীবনে আর কিছুই নেই। মুম্বাইয়ে আমি বাস্তব জীবনের অভিনয় করি। কিন্তু কিছু জায়গা থাকে, যেখানে নিজের সত্যটাকেই খুঁজে পাওয়া যায়। নিজেকে খুঁজে পাওয়ার এটাই আমার জায়গা।'




No comments