Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

চূড়ান্ত সতর্ক রাজ্য সরকার, ভিন রাজ্য থেকে আসা প্রতিটি ট্রেনের যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় বিশেষ নজরদারী !



নিউজবাংলা ডেস্ক : বাংলায় এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪ জন। নজরদারীতে রয়েছেন আরও বেশ কয়েক হাজার। করোনা আক্রান্তের এই সংখ্যা যাতে বাড়তে না পারে তারজন্য বিশেষ ভাবে সতর্ক রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাফ কথা, যে কোনও মানুষকে সাদরে গ্রহণ করা হলেও তাঁদের সঙ্গে বয়ে আসা করোনা জীবানুকে কোনও ভাবেই গ্রহণ করা হবে না।



এরজন্যই ভীন রাজ্য থেকে আসা প্রতিটি ট্রেনের ওপরেই বিশেষ নজরদারীর নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার। আগামী কয়েকটা দিন অন্য রাজ্য থেকে যে সমস্ত ট্রেন হাওড়া, শিয়ালদহ বা কলকাতা স্টেশনে ঢুকবে তাদের প্রত্যেকের যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার নির্দেশ এসেছে কলকাতার পাশাপাশি জেলাগুলিতেও।

রেলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী উত্তর ও দক্ষিণের বিভিন্ন রাজ্য থেকে আসা ট্রেনগুলি মূল গন্তব্যস্থলে পৌঁছানোর আগে থামবে খড়্গপুর, আসানসোল, বর্ধমান, ঝাড়গ্রাম, মেচেদা প্রভৃতি স্টেশনে। এই স্টেশনগুলিতে যে সমস্ত যাত্রীরা ট্রেন থেকে নামবেন তাঁদের প্রত্যেকেরই স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক বলে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



এই স্বাস্থ্যপরীক্ষার নজরদারীর ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকবেন জেলা শাসক, অতিরিক্ত জেলা শাসক, মহকুমা শাসকেরা। এছাড়া মেডিক্যাল চেকআপের দায়িত্বে থাকবেন জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারীকেরা। 
এই সমস্ত দূরপাল্লার ট্রেনগুলি থেকে নামা প্রতিটি যাত্রীদের থার্মোমিটার গান দিয়ে শরীরের টেম্পারেচার দেখতে হবে। প্রত্যেকেই বাড়ি ফিরে কমপক্ষে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা বলা হয়েছে। ট্রেন সফর করে আসা কারও সর্দি-কাশি-জ্বর-গলা ব্যাথা হলেই দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলা হয়েছে।

ইতিমধ্যে রাজ্য সরকারের নির্দেশে আন্তঃরাজ্য বাস পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ভিন রাজ্য থেকে আসা ট্রেনের যোগাযোগও এই মুহূর্তে বন্ধ রাখতে চায় নবান্ন। বিদেশ থেকে আসা বিমানের ওঠা নামার বিরুদ্ধেও সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।




শিশু সুরক্ষার দিকে নজর রেখে এর আগেই ছুটি দেওয়া হয়েছে স্কুল-কলেজগুলিতে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক সহ স্কুলের পরীক্ষাগুলিকেও। যে কোনও মূল্যে করোনা স্টেজ-থ্রি রুখতে বদ্ধ পরিকর রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যে প্রতিটি জেলায়, গ্রামে গঞ্জে মাইক দিয়ে এই বিষয়ে সচেতনতার প্রচার চালানো হচ্ছে। কেউ যদি বিদেশ থেকে ফিরে আসেন তাঁদের অবশ্যই হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। 



No comments