Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

মেছেদায় ট্রেনের কামরায় বাক্সে ভরা দেহ উদ্ধারের ঘটনায় ধৃত হোটেল ব্রোকার !



নিউজবাংলা ডেস্ক : গত ২৬ ফেব্রুয়ারী দক্ষিণ পূর্ব রেলওয়ের মেচেদা স্টেশনে একটি লোকাল ট্রেনের কামরায় বাক্সের ভেতর থেকে উদ্ধার হয়েছিল এক ব্যক্তির মৃতদেহ। পরে ঘটনার তদন্তে নেমে পাঁশকুড়া জিআরপি পুলিশ জানতে পারে মৃত ব্যক্তির নাম হাসান আলি। তিনি আদতে পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়া'র বাসিন্দা হলেও কর্মসূত্রে তিনি থাকতেন কলকাতার বৌবাজারে। যেখানে তাঁর বড়সড় ফার্নিচার-এর ব্যবসা রয়েছে।



এই ঘটনার তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, দিঘায় একটি হোটেল লিজ নেওয়ার চিন্তাভাবনা করছিলেন হাসানবাবু। এরজন্য তিনি হোটেল মালিককে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকাও দিয়েছিলেন। এছাড়াও গত ২৪ ফেব্রুয়ারী কিস্তির বাকী ৬ লক্ষ টাকা দিঘায় হোটেল মালিককে মেটানোর উদ্দেশ্যেই  কলকাতার বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন।
মৃত হাসান আলি (ফাইল ছবি)
তদন্তে নেমে প্রথম থেকেই পুলিশের সন্দেহের তীর ছিল ৪ জন হোটেল ব্রোকারের দিকেই। যারা মূলতঃ হাসানবাবুকে দিঘার হোটেল লিজ পাইয়ে দেওয়ার জন্য তদ্বির করেছিলেন। সেই ৪ ব্রোকার ঘটনার পর থেকেই গায়েব হয়ে যায়। এরপর পুলিশ লাগাতার তল্লাশি চালিয়ে দক্ষিণ ২৪ পরগনার মথুরাপুর এলাকা থেকে তৌহিজ উদ্দিন শেখ ওরফে রাজু হালদারকে গ্রেফতার করেছে।



বুধবার ধৃতকে আদালতে তোলা হবে বলে জানা গেছে। জিআরপি সূত্রে খবর, ধৃত ব্যক্তি ইতিমধ্যে এই খুনের ঘটনায় জড়িত বলে স্বীকার করেছে। তবে এই ঘটনায় জড়িত আরও বেশ কয়েকজন পলাতক বলে জানা গেছে।




ধৃতকে বুধবার তমলুক মহকুমা আদালতে তোলার পর তাঁকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালাতে চাইছেন তদন্তকারীরা। হাসানবাবুকে ঠিক কেন খুন করা হল, কোথায় বা খুন করা হল, আর কে কে ছিল খুনের সময়, বাক্সে দেহটিকে ভরে ট্রেনে ফেলে দেওয়ার পেছনে কোন উদ্দেশ্য কাজ করেছে এবং বাক্সের মধ্যে উদ্ধার হওয়া মহিলার ওড়নাটি আসলে কার সবদিক খতিয়ে দেখতে চাইছেন তদন্তকারীরা।






No comments