Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

"বৃদ্ধাশ্রমে পরিণত হয়েছে সরকারি দপ্তর", প্রতিবাদে কলকাতা পুরসভার মূল গেটে অনশনে বসছে যৌথ সংগ্রামী মঞ্চ !



নিউজবাংলা ডেস্ক : "বৃদ্ধাশ্রমের পরিণত হয়েছে সরকারি দপ্তর" ঠিক এই ভাষাতেই রাজ্য সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছে সরকারি, আধা সরকারি কর্মচারী, শিক্ষক, শিক্ষা কর্মীদের যৌথ সংগ্রামী মঞ্চ



সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক দেবাশীষ শীল বলেন, "রাজ্য সরকারি দপ্তরগুলো একপ্রকার বৃদ্ধাশ্রমে পরিণত হয়েছে। হাজার হাজার বেকার যুবক যেখানে চাকরির জন্য হন্যে হয়ে ঘুরছে, সেখানে অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মীদের পুনর্নিয়োগ হচ্ছে"

সংগঠনের দাবী, অত্যন্ত অনৈতিকভাবে গ্রুপ ডি কর্মচারীদের তাদের বাসস্থান থেকে অনেক দূরে বদলী করা হচ্ছে। আদতে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, তাদেরকে বাড়ি থেকে ১৫ কিমি এলাকার মধ্যেই বদলি করা যেতে পারে।

তাঁর আরও দাবী, এই রাজ্যের সরকারী কর্মচারীদের ন্যাহ্য মহার্ঘভাতা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে দীর্ঘদিন ধরে। এই নিয়ে আদালতে মামলা লড়তে হয়েছে সরকারী কর্মীদের। যদিও সেখানেই কর্মীদেরই জয় হয়েছে।



দেবাশীষবাবু জানিয়েছেন, গত ১ জানুয়ারি ২০১৬ থেকে বেতন সংশোধন, কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ ভাতা, বদলির সন্ত্রাস রদ সহ ৫ দফা দাবিতে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর সকাল টা থেকে যৌথ সংগ্রামী মঞ্চের সদস্যরা কলকাতা পুরসভার মূল ফটকের সামনে অনশনে বসবেন।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে এর ঠিক পরের দিন অর্থাৎ ১৩ সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রী রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের সঙ্গে মিলিত হবেন কলকাতায়। সেই সভায় পে-কমিশন ঘোষণা করার কথাও রয়েছে। তার আগের দিনে এই অনশন আন্দোলন তাই বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে তথ্যভিজ্ঞ মহল।

সংগঠনের তরফে সাংবাদিক সম্মেলন করে জানানো হয়েছে, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মাঝে মাঝে বলছেন অন্য রাজ্যে পেনশন বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আদতে পেনশন বন্ধ হয়নি। ত্রিপুরা রাজ্য সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় গত ১ অক্টোবর ২০১৮ থেকে যারা চাকরিতে ঢুকেছেন তারা নতুন নিয়মে পেনশন পাবেন। 




 দেবাশীষবাবুর দাবী, কলকাতায় অনশনের পাশাপাশি যৌথ সংগ্রামী মঞ্চের সদস্যরা আগামী ১২ সেপ্টেম্বর প্রত্যেক জেলায় তাদের "দাবি ব্যাজ" পরে বিক্ষোভ আন্দোলন করবেন।





No comments