Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

শিক্ষক-শিক্ষিকাদের উদ্যোগে স্কুলেই কেক কেটে জন্মদিন সেলিব্রেট করল প্রাথমিক স্কুলের খুদে পড়ুয়ারা !



পার্থ খাঁড়া, নিউজবাংলা ডেস্ক : কোনও সরকারী স্কুলে ঘটা করে পালিত হচ্ছে ছাত্রছাত্রীদের জন্মদিন এমনটা সচরাচর দেখা যায় না। তবে এই অসাধ্য সাধন করে দেখাচ্ছেন পশ্চিম মেদিনীপুরের সিঙ্গাঘাই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকারা৷

প্রতিমাসের শেষের দিকে একটি দিন দেখে অভিভাবকদের ডেকে নিয়ে সেই মাসে জন্ম হওয়া খুদে পড়ুয়াদের নিয়ে পালন করা হয় মনোজ্ঞ জন্মদিনের অনুষ্ঠান৷ এই বুধবারও তার ব্যতিক্রম হল না। আগষ্ট মাসে জন্ম দিন রয়েছে এমন ১১ জন ছাত্র-ছাত্রীর জন্মদিন পালিত হল স্কুলের মধ্যেই



 তৃষা বাগ, অনিকেত দোলই, সুমনা বর, জয়িতা মন্ডল, অর্চিষ্মান মাইতি, শ্রাবনী বাটুল, অস্মিতা মন্ডল, সুমনা সিং, কার্তিক পলমল, রিংকু রইদাস, দেব মুর্মু এরা কেউ প্রাক- প্রাথমিক বা কেউ প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয়চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রী।

জন্মদিনের মাঙ্গলিক বরণ থেকে কেক কাটা, মোমবাতি জ্বালানো, সবই হয়৷ তবে পঠনপাঠন বাদ দিয়ে নয়৷ মিড ডে মিলের ঠিক আগে ছোট্ট করে একটি অনুষ্ঠান হয়। আর এই দিনটিতে খাওয়ারের মেনুতেও থাকে কিছু বিশেষত্ব।




জন্মদিনের অনুষ্ঠান আর মাংস হবে না তা তো হয় না। তাই ভাত, মুগের ডাল, শাকভাজা, লুপোস্তর সঙ্গে ছিল মাংস, চাটনী, পায়েস, দই, পাঁপড়বিদ্যালয়ের শিক্ষক সন্দিপন মাইতি বলেন, শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কিছু সক্ষম অভিভাবকদের অর্থানুকুল্যে এই অনুষ্ঠান হয়।

এতে বিশেষ করে মাদের মতো গ্রামাঞ্চলের ছেলেমেয়েদের যাদের জন্মদিন পালন বাড়িতে হয় না তাদেরকে একটু নন্দ দেওয়া যায়৷ গরিব শ্রেণীর শিশুদেরকে কেন্দ্র করেই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ঐদিন প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ থাকে অত্যন্ত আনন্দঘন।




সকলে পরিষ্কার পোশাক পরিধান করে আসে। জন্মদিনের কেক কাটা হয় জনপ্রিয় “হ্যাপি বার্থডে টু ইউ” গানটি গাওয়ার মাধ্যমে। ছাত্র-ছাত্রীদের মঙ্গল ও আশীর্বাদ কামনার লক্ষ্যে  মাঙ্গলিক প্রদীপ জ্বালিয়ে মাতৃস্নেহে বরণ করে নেয় শিক্ষিকারা।

উপহার হিসেবে প্রত্যেক ছাত্রের হতে তুলে দেওয়া হয় একটি করে কলম ও গাছের চারা। এধরনের অনুষ্ঠানে বেশ খুশি অভিভাবক থেকে সাধারণ গ্রামবাসীরা।




No comments