Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

রাজ্যের ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের সমস্ত সদস্যের ভাতা বাড়ল বিপুল হারে !



নিউজবাংলা ডেস্ক : কিছুদিন আগেই বিধায়কদের ভাতা বাড়িয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। এবার রাজ্যের ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের সমস্ত ক্ষেত্রে যথা জেলা পরিষদ, পঞ্চায়েত সমিতি ও গ্রাম পঞ্চায়েতের জনপ্রতিনিধিদের বেতন ব্যাপক হারে বাড়াল রাজ্য সরকার।



সোমবার নবান্ন সভাঘরে পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠকে বসে এমনই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, পঞ্চায়েতের প্রতিনিধিদের অনেক সমস্যার মধ্যে দিয়েই কাজ করতে হয়। তাই তাঁদের ভাতা বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।



তিনি ঘোষণা করে জানান, জেলা পরিষদের সভাধিপতির মাসিক ভাতা ৬ থেকে বাড়ছে ৯ হাজার টাকা। সহকারী সভাধিপতির ৫ হাজার থেকে হল ৮ হাজার টাকা, কর্মাধ্যক্ষদের ৪ হাজার থেকে বেড়ে হল ৭ হাজার টাকা, সাধারণ সদস্যদের ১ হাজার ৫০০ থেকে বেড়ে হল ৫ হাজার টাকা।




এছাড়াও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির ভাতা ৩ হাজার ৫০০ টাকা থেকে বেড়ে হল ৬ হাজার টাকা, সহ সভাপতিদের ৩ হাজার থেকে হল ৫ হাজার ৫০০ টাকা, কর্মাধ্যক্ষদের আড়াই টাকা থেকে হল ৫ হাজার টাকা। এবং সাধারণ পঞ্চায়েত সদস্যরা যারা ১৫০০টাকা পেতেন তাঁদের ৩৫০০টাকা।'

তবে রাজ্য সরকারী কর্মচারী সংগঠনগুলির অভিযোগ, সরকারী কর্মীদের ডিএ বৈষম্য, পে কমিশন চালু না করা, প্রাথমিক শিক্ষকদের কেন্দ্রীয় হারে বেতনের দাবী সবটাই এখনও ধোঁয়াশার মধ্যে রয়েছে। 

ডিএ মামলায় রাজ্য সরকার বারবার তাঁদের কোষাগারে টাকা নেই বলে দাবী জানিয়ে এসেছে। অথচ বিধায়কদের ভাতা বৃদ্ধি, পঞ্চায়েত সদস্যদের ভাতা বৃদ্ধি, পুজোয় ক্লাব গুলোকে টাকা বিলি ছাড়াও বছরে লক্ষাধিক টাকা ক্লাব পিছু দিচ্ছে রাজ্য সরকার।



এই পরিস্থিতিতে সরকারী কর্মচারীরা প্রতি বঞ্চনার ঘটনায় চূড়ান্ত ক্ষোভ বাড়ছে কর্মীদের মধ্যে। তাঁদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ ইতিমধ্যে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে দেখেছে গোটা রাজ্যবাসী। আগামী ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজ্য সরকারী কর্মীদের ক্ষোভ কিভাবে প্রশমন করে রাজ্য সরকার সেদিকেই তাকিয়ে সকলে। 



  ------- বিজ্ঞাপন -------

  ------- বিজ্ঞাপন -------

 ------- বিজ্ঞাপন -------

No comments