Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

মন্দারমণিতে নিখোঁজ গৃহবধূর কঙ্কাল উদ্ধার হল বাড়ির পাশের জঙ্গলে !

মিলন পন্ডা, নিউজবাংলা ডেস্ক : গত ১৮ জুলাই বাড়ি থেকে গায়েব হয়ে গিয়েছিলেন মন্দারমনি উপকুল থানার কিসমত হাড়বুড়ি গ্রামের বাসিন্দা মিনতি জানা (৩৭)। দীর্ঘ খোঁজাখুজির পরেও তাঁর কোনও সন্ধান মেলেনি। অবশেষে তাঁর বাড়ি থেকে সামান্য দূরের একটি…


মিলন পন্ডা, নিউজবাংলা ডেস্ক : গত ১৮ জুলাই বাড়ি থেকে গায়েব হয়ে গিয়েছিলেন মন্দারমনি উপকুল থানার কিসমত হাড়বুড়ি গ্রামের বাসিন্দা মিনতি জানা (৩৭)। দীর্ঘ খোঁজাখুজির পরেও তাঁর কোনও সন্ধান মেলেনি। অবশেষে তাঁর বাড়ি থেকে সামান্য দূরের একটি ঝোপের মধ্যে থেকে উদ্ধার হল মহিলার কঙ্কাল।



তাঁর পরনে থাকা শাড়ি থেকে মহিলাকে শনাক্ত করেছে মৃতের পরিবার। এই ঘটনার খবরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। খবর পেয়ে কাতারে কাতারে মানুষ ভীড় করেন ঘটনাস্থলে। পরে খবর পেয়ে মন্দারমনি কোস্টাল থানার পুলিশ কঙ্কালটিকে উদ্ধার করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মিনতি জানা'র পরিবারে রয়েছে দুই মেয়ে। স্বামী মাছের ব্যবসার কাছে বেরিয়ে যান। গত ১৮ জুলাই গৃহবধু মিনতিদেবী বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার আগে বাড়িতে একটি চিরকুট রেখে দিয়ে যায়। সেখানে লেখা রয়েছে "আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়"।



সেই চিরকুট দেখতে পায় তার দুই মেয়ে। এরপর তারা বাবাকে ফোন করে বিষয়টি জানায়। মিনতির স্বামী সূর্ষকান্ত জানার মন্দারমনিতে মাছের ব্যবসার রয়েছে বলে জানা গেছে। এরপর পরিবারের লোকেরা খোঁজাখুজি শুরু করলেও কোন সন্ধান পায়নি।

পরের দিন সকালে মন্দারমনি কোস্টাল থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়। তবে তারপরেও মহিলার কোনও সন্ধান মিলছিল না। এরই মাঝে শুক্রবার গ্রামের এক মহিলা ছাগল আনতে গিয়ে পুকুরপাড়ের জঙ্গলের ভেতর থেকে শাড়ি দেখতে পায়। তারপর গিয়ে দেখে পচাগলা মৃতদেহ পড়ে রয়েছে।




ওই মহিলা সবাইকে খবর দিলে স্থানীয় বাসিন্দারা ছুটে আসে এবং পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে নিয়ে আসে। এলাকার প্রাক্তন পঞ্চায়েত সদস্য পাচুগোপাল দলাই বলেন, দীর্ঘদিন ধরে গৃহবধু অসুখে ভুগছিল। একাধিক ডাক্তারের কাছে চিকিৎসার করান। সম্ভবতঃ সেই কারনেই তিনি আত্মঘাতী হতে পারেন।


  ------- বিজ্ঞাপন -------

  ------- বিজ্ঞাপন -------

 ------- বিজ্ঞাপন -------

No comments