Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

প্রাথমিক শিক্ষকদের অনশনে পূর্ণ সমর্থন বিজেপির, রাজ্য সরকারের ভূমিকায় ক্ষোভ বাড়ছে চড়চড়িয়ে !



নিউজবাংলা ডেস্ক, কলকাতা : আজ অনশনের ১১ দিন। গত শনিবার থেকে বিধাননগর উন্নয়ন ভবনের সামনে খোলা আকাশের নীচে অস্থায়ী মঞ্চ বেঁধে অনশন চালিয়ে যাচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন উস্থি ইউনাইটেড প্রাইমারী টিচার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশান (UUPTWA)। এই আন্দোলনে তৃণমূলের কোনও হেলদোল না থাকলেও ইতিমধ্যে অনশন মঞ্চে পূর্ণ শক্তি নিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে বিজেপি।



আন্দোলন শুরু হওয়ার পর থেকেই একে একে বিজেপি নেতারা অনশন মঞ্চের পাশে এসে তাঁদের দাবীকে মান্যতা দিয়েছেন। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, সায়ন্তন বসু, সাংসদ সুভাষ সরকার, বিধায়ক মনোজ তিঙ্গা, অনুপম হাজরা, শঙ্কুদেব পন্ডা সহ আরও অনেকে।

আর উল্টোদিকে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্ধারিত যোগ্যতার ভিত্তিতে বেতনের দাবীকে কটাক্ষ করেছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী। এরফলে প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে রাজ্য সরকারের প্রতি ক্ষোভ বাড়ছে অবিরত। অন্যদিকে বিজেপির তরফে যেভাবে প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলনকে সহানুভুতি জানানো হয়েছে, রাজ্যের ক্ষমতায় এলে তাঁদের দাবী মিটিয়ে দেওয়ার যে আশ্বাস বিজেপি দিচ্ছে তার ফলে শিক্ষকদের অনেক বেশী সমীহ আদায় করছে বিজেপি।




এছাড়াও মুকুল রায় ইতিমধ্যে রাজনৈতিক দূরত্ব ভুলে মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি পাঠিয়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলনের দাবীগুলিকে মেনে দেওয়ার জন্য আবেদন জানাবেন বলেছেন। তিনি দিল্লীতে গিয়েও এই বিষয়টি কেন্দ্রীয় সরকারের দৃষ্টিগোচর করবেন বলেছেন।

উস্থিয়ানদের আক্ষেপ, এমন অমানবিক রাজ্য সরকার কোথাও দেখা যায়নি। ঠিক কোন কারনে ১৪ শিক্ষকের অনৈতিক বদলীর নির্দেশ বাতিল করে তাঁদের পুনরায় আগের কাজের জায়গায় ফিরিয়ে আনা যাচ্ছে না তা নিয়ে ক্ষুব্ধ সকলেই। 



উস্থির রাজ্য সভাপতি সন্দীপ ঘোষ তো জানিয়ে দিয়েছেন, বারে বারে শিক্ষামন্ত্রী আলোচনায় বসেছেন, কিন্তু তিনি কথা রাখেননি কোনওবারেই। গত শনিবারও তড়িঘড়ি উস্থিয়ানদের ডেকে শিক্ষামন্ত্রী বলেছিলেন, সোমবারেই ওই ১৪ শিক্ষককে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়ে যাবে। কিন্তু তার কোনও লক্ষণ সোমবার মেলেনি। 




এদিকে অনশনকারীদের যা অবস্থা তাতে যে কোনও সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটে গেলে পরিস্থিতি যে আরও ভয়াবহ হয়ে যাবে সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। সেক্ষেত্রে রাজ্য সরকার প্রাথমিক শিক্ষকদের ভরসা ফিরে পেতে কি করে সেদিকেই তাকিয়ে গোটা রাজ্যের লক্ষ লক্ষ প্রাথমিক শিক্ষকরা। 


  ------- বিজ্ঞাপন -------

  ------- বিজ্ঞাপন -------

 ------- বিজ্ঞাপন -------

No comments