Page Nav

HIDE

Post/Page

Weather Location

Breaking !

latest

"দিদিকে বলো" নিয়ে ভারতী ঘোষের কটাক্ষ, "এভাবে মানুষকে বোকা বানানো যায় না" !



পার্থ খাঁড়া, নিউজবাংলা ডেস্ক : "কোনো সময় হেল্পলাইন, কোনো সময় প্রশান্ত কিশোর, কখনো দিদিকে বলো| কিছুই কাজে আসবে না| কারন দিদিমনির যাওয়ার সময় এসে গেছে| মানুষকে বোকা ভাববেন না| এটাই আপনার সবথেকে বড় বোকামি"|




ঠিক এভাবেই মঙ্গলবার কেশপুরে সভা করে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেত্র্রী ভারতী ঘোষ| এদিন কেশপুরের শাঁখপুর গ্রামের মানুষের সঙ্গে দেখা করতে আসেন তিনি| এদিনের সভায় তাঁর মন্তব্য, এখানে রোজ মোদীজি আসবেন| অমিত শাহ আসবেন| আপনাদের হাত খুলে দেবেন| চাইতে হবে না| এখানে একটা রাজ্য সরকার চলছে যারা সকাল বিকেল কেন্দ্রের সঙ্গে মারামারি, কাটাকাটি করছে|

পরক্ষনেই মমতার নেতৃত্বে চলা রাজ্য সরকারকে ভিখিরির সরকার বলে কটাক্ষ করেন তিনি| তাঁকে বলতে শোনা যায়, এই রাজ্য সরকারের কিছু দেওয়ার ক্ষমতা নেই| ভিখিরির সরকার| শুধু মিখ্যে বুলি আওড়াচ্ছে| শুধু চমকানি| ধমকানি| মিথ্যে মামলা দেওয়ার ক্ষমতা আছে| দিনরাত শুধু চিন্তা করছে মানুষকে কি করে বোকা বানানো যায়| বিরোধীদের কি করে জেলে পোরা যায়|



এদিন গ্রামের মানুষের সঙ্গে মিশে কাদা পেরিয়ে বিজেপি কর্মী সমর্থকদের বাড়িতে যান| ছোট শিশুদের কোলে তুলে নেন| আদর করেন| বড়দের প্রণাম করে তারা কেমন আছেন তা জনাতে চান| বাড়ির মহিলাদের সঙ্গে কথা বলেন| তাঁদের কি কি সমস্যা তা জানতে চান|

তাঁর অভিযোগ, একটা গ্রাম থেকে পুলিশ নিরাপরাধ মানুষকে তুলে নিয়ে যাচ্ছে বাকিরা সকলে দেখছে| এরপরও আপনি ভাবেন মানুষ কিছুই বুঝছে না| আপনার সময় ফুরিয়ে এসেছে| কেশপুরের মানুষকে বলব সবাই ১ টাকা করে দেবেন| আমরা ওনাকে ট্রেন বা প্লেনের টিকিটের টাকা দিয়ে দেব| উনি যেখানে খুশি চলে যাবেন| বাংলায় ওনার ঠাঁই নেই|




শাঁখপুর গ্ৰাম, ১০ নং অঞ্চলে শেখ নাজির হোসেন-এর বাড়ীতে খাওয়া দাওয়া করেন তিনি।  আর এলাকার সবচেয়ে প্রবীণ ডানপন্থী মানুষ ফাইজুর রহমান এর সাক্ষাৎও করেন ভারতী ঘোষের নেতৃত্বে বিজেপি নেতা কর্মীরা। তারপর এলাকায় মানুষের কাছ থেকে শাসক দলের বিরুদ্ধে নানা অভাব অভিযোগ শোনেন তিনি।



  ------- বিজ্ঞাপন -------

  ------- বিজ্ঞাপন -------

 ------- বিজ্ঞাপন -------


No comments